সিএস, সিএসই, এসই নাকি আইসিটি?

তোমরা অনেকেই এখন উচ্চমাধ্যমিক পার হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি নিচ্ছ। আর প্রোগ্রামিংয়ের প্রতি ভালোলাগার কারণেই হোক, কিংবা পাশের বাসার বড় ভাইয়ের প্রভাবেই হোক, তোমাদের কেউ কেউ হয়ত কম্পিউটার সায়েন্স পড়তে চাচ্ছ। এখন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে বেশ কিছু বিভাগ আছে, যেগুলোর নাম দেখে তুমি দ্বিধাগ্রস্ত। যেমন : সিএস (কম্পিউটার সায়েন্স), সিএসই (কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং), এসই (সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং), আইসিটি (ইনফরমেশন ও কমিউনিকেশন টেকনোলজি) ইত্যাদি। তোমাদের প্রশ্নটি হচ্ছে কোন বিভাগে ভর্তি হলে ভালো প্রোগ্রামার হওয়া যায়? কিংবা, পাশ করার পরে যদি আমি সফটওয়্যার প্রকৌশলী বা নির্মাতা হিসেবে চাকরি করতে চাই, এসব বিভাগের মধ্যে কোনটি পড়া ভালো হবে?

আমি যেহেতু অনেক বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলাম, তাই আমি ‘প্রোগ্রামিং স্কুল'[১] গ্রুপে একটি পোস্ট দেই এবং সেখান থেকে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিলেবাস জোগাড় করি। বিভাগের নামগুলো ভিন্ন হলেও সিলেবাস কিন্তু খুব কাছাকাছি। এখন চল, একটু জেনে নিই, আন্ডারগ্রাজুয়েট পর্যায়ে কোন কোন বিষয়গুলো ভালোভাবে পড়লে সেটা একজনকে ভালো সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে বেড়ে উঠতে সহায়তা করে?

প্রথমেই জানতে হবে কম্পিউটার সম্পর্কে মৌলিক ধারণা, আর সেটি পাওয়া যাবে Introduction to Computer নামক কোর্সে। তারপর Structure Programming (স্ট্রাকচার্ড প্রোগ্রামিং)। সাধারণত আমাদের দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এই বিষয়টি পড়ানোর সময় সি ল্যাঙ্গুয়েজ শেখায়। আর সেই সাথে Discrete Mathematics (ডিসক্রিট ম্যাথমেটিক্স)। এটিও দেখবে সিলেবাসে আছে।

তারপরে আমাদের শিখতে হবে Object Oriented Programming (অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং), Data Strucutre (ডাটা স্ট্রাকচার) ও Digital Logic (ডিজিটাল লজিক)। সেগুলোও দেখবে সব বিষয়ের সিলেবাসেই আছে।

এর পরের ধাপ রয়েছে কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং (Computer Networking), মাইক্রোপ্রসেসর ও অ্যাসেম্বলি ল্যাঙ্গুয়েজ (Microprocessor and Assembly Language), কম্পিউটার আর্কিটেকচার (Computer Architecture) ও অপারেটিং সিস্টেম (Operating System)। এগুলোও আবশ্যিক বিষয়, মানে জানতেই হবে। তাই তোমরা যদি ভার্সিটির সিলেবাসগুলো খেয়াল করো, দেখবে যে এই বিষয়গুলো আছেই, থাকতেই হবে।

আর বাকি রইল ডাটাবেজ (Database), অ্যালগরিদম (Algorithm), আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স (Artifical Intelligence) ও সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং (Software Engineering)। এই বিষয়গুলোও না জানলেই নয়।

এখন তুমি যদি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স সংশ্লিষ্ট কোনো বিভাগে ভর্তি হতে চাও, তাহলে সেই বিভাগের (মানে ডিপার্টমেন্টের) সিলেবাসটি দেখে নাও, যদি উপরে যেসব বিষয়ের কথা উল্লেখ করলাম, সেগুলো থাকে, তাহলে নিশ্চিন্তে ভর্তি হয়ে যাও।

তবে একটি বিষয়, তোমাকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আরো অনেক বিষয় পড়তে হবে। আমি শুধু সেই বিষয়গুলোর কথা উল্লেখ করলাম যা তোমাকে ভালো সফটওয়্যার নির্মাতা হতে সাহায্য করবে।

আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, তুমি যেখানেই পড় না কেন, তোমার লেখাপড়ার দায়িত্বটা নিজের উপরই নিয়ে নাও। বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্স ও শিক্ষকদের আশায় বসে থাকলে তোমার নিরাশ হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। আমি যেসব বিষয়ের কথা বলেছি, সেগুলো নিজে নিজে পড়ে আগেভাগেই একটু ধারণা নিয়ে রাখো। বিশেষ করে ক্লাস শুরুর আগেই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজটা শিখে ফেলো, নইলে বিপদে পড়বে। বিভিন্ন রকমের প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশ নাও। সারা পৃথিবীর খোঁজ খবর রাখো। প্রোগ্রামিংয়ের মাঝে আনন্দ খুঁজে নাও। পরিশ্রম করো। বিজয় সুনিশ্চিত।

আরো একটা কথা না বললেই নয়। ভার্সিটিতে পড়ার সময় দেখবে তোমার অমুক বন্ধু অনেক জানে, তমুক ক্লাসমেট প্রতি মাসে একটা নতুন ল্যাঙ্গুয়েজ শিখে ফেলে, আরেক বন্ধু বা বান্ধবী প্রতি মাসে ফ্রিল্যান্সিং করে ডলার ইনকাম করে। তাদেরকে অভিনন্দন জানাবে এবং তাদেরকে শ্রদ্ধা করবে। তবে কখনও তাদের মতো হওয়ার চেষ্টা করবে না। তোমার কাজ তুমি করবে। ভালো করে পড়বে, শিখবে, প্রোগ্রামিং চর্চা করবে, ফাইনাল ইয়ারে ভালো প্রজেক্ট ও ইন্টার্নশীপ করার চেষ্টা করবে। এছাড়া ঘুরে বেড়াবে, বিভিন্ন জায়গায় ভলান্টিয়ার হিসেবে কাজ করবে, খেলাধূলা করবে, প্রেম করার চেষ্টাও করতে পারো। মোট কথা জীবনটা উপভোগ করো, কারণ বিশ্ববিদ্যালয় জীবনটাই মানুষের শ্রেষ্ঠ সময়, যা আর কখনও ফিরে আসবে না।

[১] https://www.facebook.com/groups/programming.school/

[২] https://www.facebook.com/DimikComputing (কম্পিউটার সায়েন্সের কিছু বিষয় সহজভাবে বোঝানের জন্য তৈরি করা হয়েছে দ্বিমিক কম্পিউটিং স্কুল। সেখানে ইতিমধ্যে প্রোগ্রামিংয়ে হাতেখড়ি, ওয়েব কনসেপ্টস ও ডিসক্রিট ম্যাথের উপর বাংলায় অনলাইন কোর্স আয়োজন করা হয়েছে। সামনে আরো কিছু কোর্স আসছে।)

Facebook Comments

1 thought on “সিএস, সিএসই, এসই নাকি আইসিটি?”

Leave a Reply